নারায়ণগঞ্জে ভবন ধসের ঘটনায় তদন্ত কমিটি গঠন

219

নারায়ণগঞ্জ, ৪ নভেম্বর, ২০১৯ (বাসস) : নারায়ণগঞ্জের বাবুরাইল এলাকায় চারতলা ভবন ধসের ঘটনায় আজ একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে।
এ ঘটনা তদন্তে অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিষ্ট্রেট রেহানা আক্তারকে প্রধান করে সাত সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়।
কমিটিকে আগামী ৮ নভেম্বরে তদন্ত প্রতিবেদন দাখিল করতে জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে।
রাজউক-৮ এর পরিচালককে কমিটির সদস্য সচিব করা হয়েছে। কমিটির অন্য সদস্যরা হলেন, ফায়ার সার্ভিসের এক সহকারী পরিচালক, পুলিশ সুপারের প্রতিনিধি, জেলা সিভিল সার্জন, গণপূর্ত বিভাগের প্রকৌশলী ও সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা।
এদিকে নিখোঁজ শিশু ওয়াজেদকে উদ্ধারে ফায়ার সার্ভিস কর্মীরা বিরামহীন কাজ করছে। নিখোঁজ শিশুটি উদ্ধারে ফায়ার সার্ভিস কর্মীরা বিরামহীন কাজ করছে জানিয়ে ফায়ার সার্ভিসের উপ-সহকারী পরিচালক আবদুল্লাহ আরেফিন বলেন, নারায়ণগঞ্জে সাম্প্রতিক সময়ে নগরীর খানপুরেও একটি ভবন হেলে পড়েছে। আর এটি তো পুরোই ধ্বসে গেলো। ভবন নির্মাণে বিল্ডিং কোড মানা হয়নি বলে এমন দুর্ঘটনা ঘটেছে বলে তিনি মনে করেন।
এ ঘটনায় নিহত শিশু সোয়েবের দাফন রোববার রাতেই সম্পন্ন হয়েছে।
রোববার বিকেল সাড়ে চারটায় নারায়ণগঞ্জ শহরের বাবুরাইল মুন্সিবাড়ি এলাকায় এইচ এম ম্যানশন নামের একটি চার তলা ভবন ধসে পাশের খালের উপর পড়ে যায়। ভবনের তিনতলা সম্পন্ন হলেও চার তলার নির্মাণ কাজ চলছিল।
রোববার বিকেল চারটায় হঠাৎ বিকট শব্দে ভবনটি পড়ে গেলে এলাকায় আতংক সৃষ্টি হয়। এতে শোয়েব নামের ষষ্ঠ শ্রেণীর এক ছাত্র নিহত হয়। নিহতের খালাত ভাই ওয়াজেদ নিখোঁজ রয়েছে। এ ঘটনায় আরো চারজন আহত হয়।
ঘটনার খবর পেয়ে নারায়ণগঞ্জ, হাজীগঞ্জ, ফতুল্লা ফায়ার সার্ভিস কর্মী, পুলিশ ও র‌্যাব সদস্যসহ এলাকবাসী উদ্ধার কাজ শুরু করে। নিখোঁজ শিশু উদ্ধারে নারায়ণগঞ্জ ফায়ার সার্ভিস কর্মীদের কাজ অব্যাহত আছে। তবে সোমবার সন্ধা ছয়টা পর্যন্ত তাকে উদ্ধার করা সম্ভব হয়নি।
নিহত শোয়েব ও নিখোঁজ ওয়াজেদ বাবুরাইল বেপারীপাড়া এলাকার সানরাইজ মডেল স্কুলের ষষ্ঠ শ্রেণীর ছাত্র। তারা আরবী শিক্ষকের কাছে পড়তে এসে এ দুর্ঘটনার শিকার হয় বলে জানান পরিবারের সদস্যরা।