মেহেরপুরে ৪টি মডেল মসজিদ নির্মাণ কাজ চলছে

332

মেহেরপুর, ১৬ অক্টোবর, ২০১৯ (বাসস): জেলায় ৪ টি মডেল মসজিদ ও সাংস্কৃতিক কেন্দ্র নির্মাণ কাজ শুরু হয়েছে। মেহেরপুর জেলা মডেল মসজিদ নির্মাণ হচ্ছে ১৪ কোটি ২৬ লাখ ৩৪ হাজার ৩৯০ টাকা ব্যয়ে, সদর উপজেলা মডেল মসজিদ নির্মাণে ১৩ কোটি ৩৭ লাখ ১ হাজার ৬৭১ টাকা, মুজিবনগর উপজেলা মডেল মসজিদ নির্মিত হচ্ছে ১২ কোটি, ৫৯ লাখ ১৬ হাজার ৪২১ টাকা এবং গাংনী উপজেলা মডেল মসজিদ নির্মিত হচ্ছে ১৩ কোটি ১৬ লাখ ৪৫ হাজার টাকা ব্যয়ে। জেলা ও উপজেলা মিলে চারটি মডেল মসজিদ নির্মাণ হচ্ছে মোট ৫৩ কোটি ৩৮ লাখ ৯৭ হাজার ৪৮২ টাকা ব্যয়ে। গণপূর্ত অধিদপ্তরের অধীনে নির্মাণ কাজ করছে বিভিন্ন ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান। গত ৩০ আগস্ট জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন এমপি ১৪ কোটি ২৬ লাখ ৩৪ হাজার ৩৯০ টাকা ব্যয়ে মেহেরপুর জেলা মডেল মসজিদের ভিত্তি প্রস্তর নির্মাণ কাজের উদ্বোধন করেন।
জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বপ্নের সুখী, সমৃদ্ধ ও উন্নত বাংলাদেশ গড়ার প্রত্যয়ে বঙ্গবন্ধু কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ২০১৪ সালের নির্বাচনী ইশতেহারে প্রতিটি জেলা ও উপজেলায় একটি করে উন্নত মসজিদ নির্মাণের প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন। সেই প্রতিশ্রুতি বাস্তবায়নে প্রতিটি জেলা ও উপজেলায় একটি করে ৫৬০টি মডেল মসজিদ ও ইসলামিক সংস্কৃতি কেন্দ্র স্থাপন হচ্ছে। প্রকল্পটি বাস্তবায়নে ৮ হাজার ৭২২ কেটি টাকা ব্যয়ে এপ্রিল, ২০১৭ হতে ডিসেম্বর ২০২০ পর্যন্ত মেয়াদে বাস্তবায়ন হচ্ছে। সংশোধিত অনুমোদিত প্রকল্পের নকশা অনুযায়ী মডেল মসজিদের জন্য জেলা পর্যায়ে ৪ তলা ও উপজেলার জন্য ৩ তলা এবং উপকূলীয় এলাকায় ৪তলা মডেল মসজিদ ও ইসলামিক সাংস্কৃতি কেন্দ্র নির্মাণের কাজ চলছে।
জন প্রশসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন এমপি বাসস‘কে বলেন, মডেল মসজিদ ও ইসলামিক সাংস্কৃতিক কমপ্লেক্সে নারী ও পুরুষদের পৃথক ওজু ও নামায আদায়ের সুবিধা, লাইব্রেরী গবেষণা ও দীনি দাওয়া কার্যক্রম, পবিত্র কুরআন হেফজ, শিশু শিক্ষা, অতিথিশালা, বিদেশী পর্যটকদের আবাসন, মৃতদেহ গোসলের ব্যবস্থা, হজ্জযাত্রীদের নিবন্ধন, প্রশিক্ষণ, ইমামদের প্রশিক্ষণ ইত্যাদি ব্যবস্থা থাকছে। ইমাম-মুয়াজ্জিনের আবাসনসহ সাংস্কৃতিক কেন্দ্রে কর্মকর্তা-কর্মচারীদের জন্য অফিসের ব্যবস্থাও রাখা হচ্ছে। ২০২০ সালের শেষ সময়ের মধ্যে এসব মসজিদ নির্মাণ কাজ শেষ হবে।