আইসিটির সর্বোচ্চ ব্যবহার ছাড়া উন্নত নাগরিক সেবা দেয়া সম্ভব নয় : ডিএনসিসি মেয়র

220

ঢাকা, ২৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ (বাসস) : ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের (ডিএনসিসি) মেয়র মো. আতিকুল ইসলাম বলেছেন, নাগরিক সেবায় আইসিটির সর্বোচ্চ ব্যবহার ছাড়া উন্নত সেবা দেয়া সম্ভব নয়।
তিনি বলেন, ‘একটি উন্নত, আধুনিক ও জনবান্ধব স্মার্ট সিটি তৈরিতে সর্বপ্রথম দরকার উদ্ভাবনী চিন্তাশক্তি এবং তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তির সর্বোত্তম ব্যবহার।’
মেয়র আজ ইঞ্জিনিয়ারস ইনস্টিটিউট, বাংলাদেশ ভবনে ইনস্টিটিউট অব ইলেক্ট্রিক্যাল এন্ড ইলেক্ট্রনিকস ইঞ্জিনিয়ারস (আইইইই) আয়োজিত ‘স্মার্ট সিটি ইনোভেটিভস-বাংলাদেশ’ শীর্ষক কর্মশালার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতা করছিলেন।
মেয়র সকল তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তিবিদ, বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক, তরুন গবেষক ও শিক্ষার্থীদেরকে নাগরিক সেবায় ও স্মার্ট সিটি গঠনে আরো গবেষণা ও উদ্ভাবনী চিন্তা নিয়ে এগিয়ে আসার আহ্বান জানিয়ে বলেন, এজন্য ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশন সম্ভাব্য সকল ধরনের সহযোগিতা করবে।
তিনি বলেন, উন্নত নাগরিক সেবা দিতে সিটি কর্পোরেশনের আয় বাড়াতে হবে। সনাতন ব্যবস্থাপনা ও কাঠামোতে আমরা ডিএনসিসির আওতার সকল বাসাবাড়ি ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠান থেকে কর আদায় করতে পারছি না। তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি ব্যবহারের মাধ্যমে কীভাবে কর না বাড়িয়ে করের আওতা বাড়ানো যায় সেবিষয়ে তিনি প্রকৌশলীদের সহযোগিতা চান।
মেয়র বলেন, গণপরিবহনে শৃঙ্খলা ফিরিয়ে আনতেও তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখতে পারে এবং সেবিষয়েও তিনি পরামর্শ চান এবং যানজট নিরসনে নতুন নতুন উদ্ভাবনী চিন্তা ও গবেষণায় গুরুত্বারোপ করেন।
তিনি বলেন, টেলিমেডিসিন, দূর্যোগ ব্যবস্থাপনা, হাসপাতাল, জলাবদ্ধতা, সুপেয় পানি নিশ্চিতকরণ, চিত্তবিনোদন, সবুজায়ন ও বাগানসহ সকল ধরনের সেবাই তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তির মাধ্যমে সহজীকরণ করা সম্ভব।
বাংলাদেশ প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক সেলিয়া সাহনাজের সভাপতিত্বে আয়োজিত এই কর্মশালায় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন আমেরিকার ভার্জিনিয়া টেক বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ড. সাইফুর রহমান এবং ভারতের ড. রামকৃষ্ণ কাপ্পাগানতু।