বাসস দেশ-৩৩ : জলবায়ু বিপর্যয়রোধ কার্বণ নিঃসরণ কমানোর দাবিতে শিক্ষার্থীরাদের সমাবেশ

411

বাসস দেশ-৩৩
শিক্ষার্থী-সমাবেশ
জলবায়ু বিপর্যয়রোধ কার্বণ নিঃসরণ কমানোর দাবিতে শিক্ষার্থীরাদের সমাবেশ
ঢাকা, ১৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ (বাসস) : বিশ^নেতৃবৃন্দকে কার্বণ নিঃসরণ কমাতে কার্যকর ব্যবস্থা গ্রহণের জোরালো দাবী জানিয়ে আজ রাজধানীর রায়েরবাজার বৈশাখী খেলার মাঠে স্টপ এমিশনস নাও এবং ১৩টি বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের অংশগ্রহণে সমাবেশের আয়োজন করা হয়। সমাবেশে এক হাজার শিক্ষার্থীরা সমবেতভাবে দাড়িয়ে ‘কার্বন নিঃসরণ বন্ধ কর’ বাক্যটি প্রদর্শন করে।
স্টপ এমিশনস নাও উপদেষ্টা দেবরা ইফরইমসনের সভাপতিত্বে সমাবেশে প্রধান অতিথি ছিলেন মোহাম্মদপুর থানা আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহসভাপতি মো: ফাহিম সাদেক খান, বিশেষ অতিথি ছিলেন ৩৪ নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি রবিউল আলম।সমাবেশে স্টপ এমিশনস নাও-বাংলাদেশের সদস্য সচিব মনজুর হাসান দিলু ও ১৩টি বিদ্যালয়ের শিক্ষক ও শিক্ষার্থীরা বক্তব্য রাখেন।
দেবরা ইফরইমসন বলেন, জলবায়ু বিপর্যয়রোধের এই আন্দোলনে তরুণদের এগিয়ে আসতে হবে। এ আন্দোলন কোন একক দেশ বা জাতির নয় বরং আমাদের অস্তিত্ব রক্ষার আন্দোলন। পৃথিবীর অস্তিত্ব রক্ষায় আমাদের সবাইকে এক হয়ে, অধিক কার্বন নি:সরণকারী দেশগুলোকে চাপ প্রয়োগ করতে হবে যাতে তারা আমাদের আহ্বানে সাড়া দেয়।
মো: ফাহিম সাদেক খান বলেন, জলবায়ু বিপর্যয়ের ক্ষতিকর প্রভাবে সমগ্র প্রাণ প্রকৃতি হুমকির মুখে। এ অবস্থা চলতে থাকলে আগামীতে লাখ লাখ মানুষ বাস্তুহারা হয়ে অভ্যন্তরীণ ও আন্তর্জাতিকভাবে শরনার্থী হতে বাধ্য হবে। এটি মানবসৃষ্ট দূর্যোগ। এ বিপর্যয় রুখতে অতিস্বত্ত্বর কার্যকর ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে।
বিভিন্ন বিদ্যালায়ের শিক্ষার্থীরা বলেন,জলবায়ু পরিবর্তনের কারনে আমার দেশ আজ হুমকির মুখে। উন্নত দেশগুলো তাদের নিজেদের ভোগ-বিলাসের জন্য আমাদের মত ছোট রাষ্ট্রগুলোকে দিনের পর দিন ধ্বংসের দিকে ঠেলে দিচ্ছে। তাদের অতিমাত্রায় কার্বন নিঃসরণের জন্য আমরা আজ বাস্তুহারা হচ্ছি। এভাবে চলতে থাকলে অদূর ভবিষ্যতে আমরা হয়তো আমাদের বাংলাদেশ নামক দেশটিকেও বিশ^ মানচিত্র থেকে হারাবো। তাই, আমরা আজ সকলে এক হয়ে জলবায়ু বিপর্যয়রোধে কার্বন নিঃসরণকারী দেশগুলোকে আহ্বান জানাতে চাই যে, ‘তোমরা তোমাদের অধিক কার্বন নিঃসরণ বন্ধ করো।’
বাসস/সবি/আরআই/২২৩০/কেকে