বাসস ক্রীড়া-১২ : আফগানিস্তানকে হাল্কাভাবে নিচ্ছে না বাংলাদেশ

615

বাসস ক্রীড়া-১২
বাংলাদেশ-আফগানিস্তান
আফগানিস্তানকে হাল্কাভাবে নিচ্ছে না বাংলাদেশ
চট্টগ্রাম, ৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৯(বাসস) : একমাত্র টেস্টে আফগানিস্তানকে হাল্কাভাবে না নিতে সতীর্থদের সতর্ক করে বাংলাদেশ অধিনায়ক সাকিব আল হাসান বলেছেন টেস্টে অভিজ্ঞতার অভাব থাকলেও সফরকারী দলের ব্যাটিং ও বোলিং উভয় লাইনআপই মানসম্মত। যার মাধ্যমে তারা অভিজ্ঞতার অভাব পুষিয়ে নিতে পারবে।
জয় দিয়েই বাংলাদেশ সফর শুরু করেছে আফগানিস্তান। বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড(বিসিবি) একাদশের বিপক্ষে ড্র হওয়া দুই দিনের একমাত্র অনুশীলন ম্যাচে পুরো ইনিংসেই স্বাগতিকদের উপর ঝড় তুলেছে আফগান স্পিনাররা।
একই সাথে লংগার ভার্সনে তাদের ব্যাটসম্যানরাও যথাযথ ধৈর্য্যরে পরিচয় দিয়েছে, যা সাকিবকে সতর্ক করে তুলেছে।
সাকিব বলেন, ‘তাদের ‘এ’ দল অসাধারণ ভাল খেলেছে এবং দুই দিনের অনুশীলন ম্যাচেও তাদের উদ্বোধনী ব্যাটসম্যানরা অনেক বেশি ধৈর্য্যের প্রমাণ দিয়েছেন। আপনাকে ঐ সব বিষয়ই বিবেচনায় রাখতে হবে।’
‘সুতরাং আমাদের যা করতে হবে তা হচ্ছে সঠিকভাবে আমাদের মৌলিক বিষয়টি ঠিক রাখতে হবে। সঠিক পন্থায় মৌলিক বিষয়টা করতে পারলে এবং মনোসংযোগ ঠিক রাখতে পারলে আমরা ভাল করতে পারব বলে আমি মনে করি।’
সাকিব আরেকটি বিষয়ের উপড় গুরুত্বরোপ করেন তা হচ্ছে মোমেন্টাম ধরে রাখা। ব্যাটিং কিংবা বোলিং যেটাই প্রথম করুক না কেন মোমেন্টাম ধরে রাখাটা গুরুত্বপূর্ণ মনে করছেন বাংলাদেশ অধিনায়ক।
তিনি বলেন, ‘এশিয়ার মাটিতে টস সব সময়ই গুরুত্বপূর্ণ। আমরা টস জিতলে এটা আমাদের কিছুটা এগিয়ে রাখবে। আগে ব্যাটিং কিংবা বোলিং যেটাই করিনা কেন মূল বিষয়টা হচ্ছে শুরুটা ভাল করা। একবার মোমেন্টাম পেলে সেটা ধরে রেখে সামনে এগিয়ে যেত হবে।’
আফগানিস্তানের বোলিং আক্রমণ ভাল হওয়ায় ব্যাটসম্যানদের চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা করতে হবে ধারণা করছেন অধিনায়ক।
তিনি বলেন, ‘ভাল করতে ব্যাটসম্যানদের চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা করতে হবে। কেননা তাদের ফাস্ট বোলাররা উঁচু মানের এবং সকলেই জানে তাদের স্পিনাররা কত ভাল। সুতরাং স্বাভাবিকভাবেই ব্যাটসম্যানদের জন্য বড় চ্যালেঞ্জ অপেক্ষা করছে।’
কিন্তু নিজ দলের ব্যাটসম্যানদের উপর আস্থা রেখে সাকিব বলেন, ‘আমার ব্যাটসম্যানদের উপর আমার পূর্ণ আস্থা আছে। গত দুই সপ্তাহ আমরা যেভাবে অনুশীলন করেছি, তার চেয়ে বেশি কিছু চাইতে পারিনা। প্রত্যেকেই নিজের অবস্থান থেকে নিজের সেরাটা দিয়েছেন। এখন ম্যাচে তার প্রতিফলন ঘটলে আমরা ভাল করতে পারব।’
সাকিব বলেন, এ টেস্ট তার পরিকল্পনা একদম সাধারণ-প্রতিপক্ষের ২০ উইকেট শিকার করা এবং যত বেশি রান করা।
তিনি উল্লেখ করেন, ‘২০ উইকেট শিকার করতে না পারলে ম্যাচ জয়ের কোন সম্ভাবনা থাকবেনা। সুতরাং বোলারদের ২০ উইকেট শিকারের চেষ্টা করতে হবে এবং চেষ্টা করতে হবে যত কম রান খরচ করা যায়। একই সঙ্গে ব্যাটসম্যানদের কাজটাও একদম সোজা- যতটা সম্ভব বেশি রান করার চেষ্টা করতে হবে। সুতরাং এটাই পরিকল্পনা এবং আমি খুব বেশি কিছু ভাবত চাইনা। যে কারণে বলেছি আমাদের মৌলিক বিষয়গুলো ঠিকভাবে করতে হবে।’
বাসস/এসএমপি/স্বব/২০০০/এএমটি