শেখ হাসিনার চিন্তা ও নেতৃত্বের কারণে ডিজিটালের সুফল পাচ্ছেন নাগরিকরা : মোমেন

443

সিলেট, ২৭ জুলাই, ২০১৯ (বাসস) : পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সুদূরপ্রসারী চিন্তা ও বিচক্ষণ নেতৃত্বের কারণে ডিজিটাল বাংলাদেশের সুফল এদেশের জনগণ পেতে শুরু করেছে।
আজ শনিবার সন্ধ্যায় সিলেটে ‘ডিজিটাল সিলেট সিটি’ প্রকল্পের উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি একথা বলেন।
তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি (আইসিটি) প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমদ পলক এমপি, অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন। সিলেটের বিভাগীয় কমিশনার মো. মোস্তাফিজুর রহমান সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ আিতথি ছিলেন প্রধান তথ্য কমিশনার মরতুজা আহমদ ও বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিলের প্রধান নির্বাহী পার্থপ্রতিম দেব।
এসময় ডিজিটাল সিলেট সিটি প্রকল্পের ফ্রি পাবলিক ওয়াইফাই জোন ও আইপি ক্যামেরা বেইসড সার্ভিলেন্স সিস্টেম এবং তথ্য কমিশনের আরটিআই অনলাইন ট্র্যাকিং সিস্টেম এর উদ্বোধন করেন প্রধান অতিথি।
এর আগে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আইসিটি বিষয়ক উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয়-এর জন্মদিন উপলক্ষে কেক কাটেন অতিথিরা।
পররাষ্ট্রমন্ত্রী আরও বলেন, ডিজিটাল সিলেট সিটি প্রকল্পের কারণে এ অঞ্চলের মানুষের নিরাপত্তা নিশ্চিত হবে। বিশেষ ধরণের আইপি ক্যামেরা স্থাপনের কারণে পুলিশ সহজে অপরাধীদের সনাক্ত ও ধরতে পারবে। বিনামূল্যে ইন্টারনেট সেবা পাওয়া যাবে। পর্যটক ও প্রবাসীরা নানাধরণের সুবিধা পাবে। ঘরে বসে কমখরচে সকলধরণের সেবা নিতে পারবেন নাগরিকরা।
আইসিটি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমদ পলক বলেন, যখন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার স্বপ্ন দেখিয়েছিলেন তখন অনেকে অনেক কথা বলেছে। আজ ডিজিটাল বাংলাদেশ কোন স্বপ্ন নয়, এটা এখন বাস্তবতা।
তিনি বলেন, শেখ হাসিনার সরকার এখন পরিকল্পনা করছে কিভাবে গ্রামের মানুষকে শহরের সেবা পৌঁছে দেয়া যায়। এজন্য সারাদেশে উচ্চগতির ইন্টারনেট পৌঁছে দেয়ার কাজ চলছে। অচিরেই এই স্বপ্নটি বাস্তবে রূপ দেবেন বঙ্গবন্ধু কন্যা।
ডিজিটাল সিলেট সিটি একটি পাইলট প্রকল্প উল্লেখ করে প্রতিমন্ত্রী আরও বলেন, এই প্রকল্পের সফলতার উপর নির্ভর করবে সারাদেশের শহরগুলোকে ডিজিটাইজ করার প্রক্রিয়া। তাই, ডিজিটাল সিলেট সিটি প্রকল্প সফল করা এ শহরের নাগরিকদের দায়িত্ব।
সিলেট মহানগর পুলিশ কমিশনার মো. গোলাম কিবরিয়া, সিলেটের জেলা প্রশাসক এম কাজী এমদাদুল ইসলাম, তথ্য কমিশনের পরিচালক জিল্লুর রহীম শাহরিয়ার, ডিজিটাল সিলেট সিটি প্রকল্পের পরিচালক মোহাম্মদ মহিদুর রহমান খান প্রমুখ অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন।
অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন প্রকল্পের সহকারী পরিচালক মধূসুদন চন্দ।
এর আগে পররাষ্ট্রমন্ত্রী সিলেট মহানগর যুবলীগের সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় বলেন, যুবলীগ আমাদের সম্পদ। তাদেরকে রাজনীতির পাশাপাশি দেশ গড়ার কাজেও ভূমিকা রাখতে হবে।
তিনি বলেন, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সম্পদ হল মানব সম্পদ। আর এই মানব সম্পদ যদি আমরা যথাযথভাবে কাজে লাগাতে পারি তবে অচিরেই বাংলাদেশ একটি উন্নত রাষ্ট্রে পরিণত হবে।
সিলেট নগরীর রেজিস্টারি মাঠে এ সম্মেলনের উদ্বোধন করেন যুবলীগের কেন্দ্রীয় চেয়ারম্যান মোহাম্মদ ওমর ফারুক চৌধুরী। বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক মো. হারুনুর রশীদ, আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক আহমদ হোসেন, যুবলীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য ড. আহমদ আল কবির, সিলেট জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি লুৎফুর রহমান, মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি বদর উদ্দিন আহমদ কামরান, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শফিকুর রহমান, মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আসাদ উদ্দিন আহমদ প্রমুখ।