বাসস দেশ-২৬ : মিয়ানমার প্রতিনিধি দলের রোহিঙ্গা ক্যাম্প পরিদর্শন

185

বাসস দেশ-২৬
প্রতিনিধি দল-পরিদর্শন
মিয়ানমার প্রতিনিধি দলের রোহিঙ্গা ক্যাম্প পরিদর্শন
কক্সবাজার, ২৭ জুলাই, ২০১৯ (বাসস) : সফররত মিয়ানমারের একটি প্রতিনিধি দল আজ দুপুরে কক্সবাজারের উখিয়ায় রোহিঙ্গা ক্যাম্প পরিদর্শন করেছেন।
এ সময় প্রতিনিধি দলের সদস্যরা ক্যাম্পে আশ্রিত রোহিঙ্গাদের সাথে কথা বলেন। তবে প্রতিনিধি দলের কেউই গণমাধ্যমের সাথে কোন কথা বলেননি।
মিয়ানমারের পররাষ্ট্র সচিব মিন্ট থোয়ে’র নেতৃত্বে ১৯ সদস্যের এই প্রতিনিধি দলটি শনিবার সকাল ১০ টায় বিমান যোগে কক্সবাজার পৌঁছে। বিমান বন্দর থেকে প্রতিনিধি দলটি ইনানী সৈকতে হোটেল রয়েল টিউলিপে যান। সেখানে কিছুটা সময় অবস্থান করে দুপুর দেড় টার দিকে কুতুপালং ক্যাম্পে যান। মিয়ানমার প্রতিনিধি দল প্রথমে রোহিঙ্গা সংশ্লিষ্ট সরকারি কর্মকর্তাদের সাথে বৈঠক করেন। এরপর তারা রোহিঙ্গাদের একটি গ্রুপের সাথে কথা বলেন। যেখানে ৭ জন নারী ও ২৮ জন পুরুষ ছিলেন।
রোহিঙ্গাদের একজন নেতা পরে সাংবাদিকদের জানান মিয়ানমারের প্রতিনিধি দলের সদস্যরা রোহিঙ্গাদেরকে নিজ দেশে ফিরে যেতে আহবান জানান। সেখানে কি রকম সুযোগ সুবিধা পাবেন তার সম্পর্কে ধারণা দেন প্রতিনিধি দলেন নেতা পররাষ্ট্র সচিব মিন্ট থোয়ে। এসময় রোহিঙ্গাদের পক্ষে নানা দাবি উত্থাপন করা হয়।
ওই রোহিঙ্গা নেতা বলেন, মিয়ানমারে ফিরে গেলে তাদের নাগরিক অধিকার এবং স্বাধীন ভাবে চলাফেরা করার সুযোগ দেওয়ার দাবি জানিয়েছেন তারা। তবে এ ব্যাপারে মিয়ানমার প্রতিনিধি দলের নেতা কোন আশ্বাস দেননি।
বৈঠকে অংশ নেয়া কয়েকজন রোহিঙ্গা জানান, রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন ইস্যুতে বাংলাদেশে আশ্রয় নেয়া রোহিঙ্গাদের সাথে যৌথ সংলাপে বসতে সম্মত হয়েছে সফররত মিয়ানমারের প্রতিনিধি দল। ওই সংলাপ বৈঠকে মিয়ানমার ও রোহিঙ্গাদের প্রতিনিধি ছাড়াও বাংলাদেশ সরকার এবং আন্তর্জাতিক সংস্থার প্রতিনিধিরা অংশ নেবেন বলে জানিয়েছেন। তবে কখন এ সংলাপ অনুষ্ঠিত হবে তা নিশ্চিত করা হয়নি।
শনিবার দুপুরে মিয়ানমারের প্রতিনিধি দলের উখিয়া কুতুপালং ক্যাম্প পরিদর্শনকালে এক্সটেনশন ক্যাম্প-৪ এলাকায় রোহিঙ্গারা শান্তিপূর্ণভাবে বিক্ষোভ প্রদর্শন করেন। এই সময়ে রোহিঙ্গারা প্লেকার্ড বহন করেন। সেখানে তাদের বিভিন্ন দাবির কথা লেখা ছিল। এসব দাবি দাওয়ার মধ্যে ছিল- আশিয়ানে তাদের কথা বলার সুযোগ, মৌলিক অধিকার ফিরিয়ে দেয়া, গণহত্যার বিচার, তাদের বাড়ি ভিটায় ফেরত দেয়া সহ বিভিন্ন ইস্যু।
বাসস/সংবাদদাতা/জেডআরএম/১৯৫২/কেজিএ