বাসস দেশ-৪৫ : শিল্পায়নের মাধ্যমে কমর্সংস্থানের ব্যবস্থা করতে হবে : বস্ত্রমন্ত্রী

439

বাসস দেশ-৪৫
বস্ত্রমন্ত্রী-চুক্তি স্বাক্ষর
শিল্পায়নের মাধ্যমে কমর্সংস্থানের ব্যবস্থা করতে হবে : বস্ত্রমন্ত্রী
ঢাকা, ২১ জুলাই, ২০১৯ (বাসস) : বস্ত্র ও পাট মন্ত্রী গোলাম দস্তগীর গাজী বলেছেন, শিল্পায়নের মাধ্যমে কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করতে হবে।
আজ রাজধানীর রেডিসন হোটেলে কাদেরিয়া টেক্সটাইল মিল পিপিপি (পাবলিক প্রাইভেট পাটর্নারশিপ)-এর আওতায় ওরিয়ন গ্রুপের কাছে হস্তান্তর করার লক্ষ্যে ওরিয়ন কাদেরিয়া টেক্সটাইল ও বিটিএমসির মধ্যে এক চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে মন্ত্রী একথা বলেন।
অনুষ্ঠানে বিটিএমসি’র পক্ষে চুক্তি স্বাক্ষর করেন বাংলাদেশ টেক্সটাইল মিলস কপোর্রেশন (বিটিএমসি)-এর চেয়ারম্যান ব্রি. জে. মোহাম্মদ কামরুজ্জামান এবং ওরিয়ন গ্রুপের পক্ষে ওরিয়ন কাদেরিয়া টেক্সটাইল লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক সালমান ওবায়দুল করিম।
মন্ত্রী বলেন, পিপিপি’র মাধ্যমে দেশের শিল্পায়ন এগিয়ে যাবে। প্রাইভেট সেক্টরে এসব বন্ধ মিলসমূহ হস্তান্তরের মাধ্যমে যেমন উৎপাদনশীলতা বাড়বে, তেমনি নতুন নতুন কর্মসংস্থানের সুযোগ তৈরি হবে। বাংলাদেশ পিপিপি মডেলে সফল একটি দেশ। বিজেএমসি ও বিটিএমসি’র মতো লোকসানের সেক্টরগুলোকে পিপিপি মডেলের মাধ্যমে উৎপাদনের ধারায় ফিরিয়ে নিতে হবে। প্রত্যেক বছর বাংলাদেশের বাজেটের আকার বাড়ছে।
তিনি বলেন, ২০৪১ সালের মধ্যে বাংলাদেশকে একটি উন্নত-সমৃদ্ধ দেশে রূপান্তরের জন্য শিল্পায়নের কোনো বিকল্প নাই। দেশের বেকার সমস্যা দ্রুত দূর করতে জরুরিভিত্তিতে শিল্পায়নের মাধ্যমে কমর্সংস্থানের ব্যবস্থা করতে হবে।
মন্ত্রী বলেন, দেশের বিভিন্ন ব্যবসাবান্ধব স্থানে বিটিএমসি’র ৬৩৬.৩৮ একর জমি অব্যবহৃত অবস্থায় পড়ে আছে। এই জমিসমূহ পিপিপি’র মাধ্যমে উৎপাদন খাতে ব্যবহারের ফলে একদিকে যেমন সংশ্লিষ্ট শিল্প প্রতিষ্ঠান লাভবান হবে, অপরদিকে দেশের জিডিপি বৃদ্ধি, কর্মসংস্থান সৃষ্টির মাধ্যমে অর্থনীতি আরো সুদৃঢ় হবে।
প্রধানমন্ত্রী গত ২০১৪ সালের ১২ অক্টোবর বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয় পরিদর্শনকালে বিটিএমসি’র বন্ধ মিলসমূহ চালু করার বিষয়ে নির্দেশনা দিয়েছেন।
অনুষ্ঠানে বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয়ের সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি মির্জা আজম, প্রধানমন্ত্রীর এসডিজি বিষয়ক মুখ্য সমন্বয়ক আবুল কালাম আজাদ, বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয়ের দায়িত্বপ্রাপ্ত সচিব রীনা পারভীনসহ বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয়ের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।
বাসস/তবি/এমএমবি/২০৩০/কেজিএ