শিরোপা ধরে রাখতে অস্ট্রেলিয়াকে প্রেরণা যোগাচ্ছেন স্টার্ক

282

লন্ডন, ১ জুলাই, ২০১৯ (বাসস) : শিরোপা অক্ষুণ্ন রাখা থেকে আর মাত্র দুই ম্যাচ দূরে দাঁড়িয়ে আছে বর্তমান চ্যাম্পিয়ন অস্ট্রেলিয়া। তাদের এই অপ্রতিরোধ্য গতিতে এগিয়ে চলার পথে বড় ভূমিকা রাখছেন পেসার মিচেল স্টার্ক। যেমনটি তিনি রেখেছিলেন ২০১৫ সালের শিরোপা জয়ে। ওই আসরে ২২ উইকেট নিয়ে টুর্নামেন্ট সেরার পুরস্কার পেয়েছিলেন বাঁহাতি এই ফাস্ট বোলার। নিউজল্যিান্ডের বিপক্ষে ফাইনাল ম্যাচটিকে একপেশে বানিয়ে দিয়েছিল অসিরা।
শনিবার লর্ডসে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে ফের বিশ্বকাপের ম্যাচে আগের সেই অবস্থানকে টপকে গেছেন স্টার্ক। এরই মধ্যে ২৪টি উইকেট নিয়ে শীর্ষ উইকেট শিকারি হিসেবে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করেছেন এই অসি পেসার। ২৬ রানে ৫ উইকেট নিয়ে অস্ট্রেলিয়ার ম্যাচ জয়ে ভূমিকা রাখা স্টার্ক ইতোমধ্যে বিশ্বকাপে তিনবার ৫ উইকেট সংগ্রহ করে সৃষ্টি করেছেন এক বিরল রেকর্ড।
এর আগে চলতি আসরের শুরুতে নটিংহ্যামে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ৪৬ রানে ৫ উইকেট এবং অকল্যান্ডে ২০১৫ সালের বিশ্বকাপে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে ২৮ রানে ৬ উইকেট সংগ্রহ করেছিলেন স্টার্ক। শুধুমাত্র দুই বিশ্বকাপে এ পর্যন্ত ১৬ ম্যাচ থেকে ৪৬ উইকেটের মালিক হয়েছেন তিনি।
বিশ্বকাপে ৫০ উইকেট নিয়ে সর্বকালের শীর্ষ উইকেট শিকারিদের তালিকা থেকে মাত্র ৪ উইকেট দূরত্বে রয়েছেন স্টার্ক। ৬ষ্ঠ বোলার হিসেবে ওই তালিকায় স্থান পাবার অপেক্ষায় আছেন তিনি। তবে গড় ও স্ট্রাইক রেটে সাবাইকে ছাড়িয়ে গেছেন তিনি। গড়ে প্রতি ১৮ বলের বিপরীতে একটি উইকেট রয়েছে স্টার্কের।
বর্তমানে সক্রিয় ক্রিকেটারদের মধ্যে শুধুমাত্র শ্রীলংকার লাসিথ মালিঙ্গা তার চেয়ে বেশী উইকেট সংগ্রহ করেছেন। ২৭ ম্যাচ থেকে ২২ গড়ে এই লংকানের উইকেট সংখ্যা ৫২টি।
৮৬ রানে অস্ট্রেলিয়ার কাছে হেরে যাবার পর নিউজিল্যান্ডের অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসন বলেন,‘ স্টার্ক এই টুর্নামেন্টে এসেছিলেন শীর্ষ উইকেট শিকারীদের একজন হিসেবে। ইতোমধ্যে ভিন্ন ভিন্ন পরিবেশের ম্যাচে নিজের দক্ষতা প্রমাণ করেছেন। এই মুহূর্তে তিনি খুবই ভাল বল করছেন।’
ইংলিশ অল রাউন্ডার বেন স্টোকসের বিরুদ্ধে স্টার্কের ইয়র্কার বলটি এবারের বিশ্বকাপে দারুনভাবে সাড়া ফেলেছে। এমনকি কিউইদের বিপক্ষে লর্ডস ম্যাচে বাঁহাতি বোলার ট্রেন্ট বোল্টের হ্যাট্রিকটিও চাপা পড়ে গেছে স্টার্কের নতুন করে ৫ উইকেট শিকারে।
স্টার্ক সংবাদিকদের বলেন, ‘লাইন ও লেন্থ ঠিক রেখে সরাসরি স্টাম্পে বোলিংই আমার মনে হয় উইকেট লাভে সহায়তা করেছে।’ তাসমান প্রতিপক্ষের বিরুদ্ধে এই সফলতায় গোটা বোলিং বিভাগকেই প্রশংসায় ভাসিয়ে তিনি বলেন, ‘ছেলেরা আজ আরেকটি দারুন কাজ করেছে। আমি মনে করি না- বোলিং গ্রুপ হিসেবে আমরা এখনো সেরা খেলাটা খেলতে পেরেছি। তবে হ্যাঁ, তাদের আটকে দেয়ার জন্য আমরা পথ খুঁজে বেড়িয়েছি। প্রতিটি ম্যাচেই আমরা উন্নতির ধারা অব্যাহত রেখেছি।’
শীর্ষ পয়েন্টধারী অস্ট্রেলিয়া ইতোমধ্যে শেষ চারে খেলা নিশ্চিত করেছে। আট ম্যাচের মধ্যে তারা শুধুমাত্র ভারতের কাছে পরাজিত হয়েছে। তবে স্টার্কের মতে দলের বর্তমান অবস্থায় তিনি খুশি। সঠিক সময়েই তারা জ্বলে উঠেছে। তিনি বলেন, ‘আমরা সব সময় বলি, দলকে চূড়ান্ত পর্বে নিতে হবে। এখনো আমরা সেরাটা খুঁজে বেড়াচ্ছি। এখনো সেরাটা খেলতে পারিনি।
আমরা শুধুমাত্র বোলিং, ব্যাটিং ও ফিল্ডিংয়ে আমাদের সেরাটার খানিকটা ঝলকানি প্রদর্শন করতে পেরেছি। তবে এখনো উন্নতির অনেক জায়গা রয়েছে। আর সেটিই হচ্ছে- এই দলটির রোমঞ্চকর দিক। আশা করি, সেমি-ফাইনালে আমরা ভাল খেলার রশদ পেয়েছি। ফাইনালে আরো ভাল খেলতে পারব।’