বাসস ক্রীড়া-১২ : আবাহনীর জয়ে শিরোপা হাতছাড়া হলো রূপগঞ্জের

265

বাসস ক্রীড়া-১২
ক্রিকেট-প্রিমিয়ার লিগ
আবাহনীর  জয়ে শিরোপা হাতছাড়া হলো রূপগঞ্জের
ঢাকা, ২৩ এপ্রিল ২০১৯ (বাসস) : ঢাকা প্রিমিয়ার ক্রিকেট লিগের এবারের আসরের শিরোপা জয়ের দৌড়ে শেষ পর্যন্ত লড়াইয়ে ছিলো আবাহনী লিমিটেড ও লিজেন্ডস অব রূপগঞ্জ। শেষ রাউন্ডে সমীকরন ছিলো এমন, আবাহনী হারলে বা টাই করলে শিরোপা জিততে জয় পেতে হবে রূপগঞ্জকে। জয় ঠিকই পেয়েছে রূপগঞ্জ। সুপার সিক্সে নিজেদের শেষ ম্যাচে প্রাইম ব্যাংক ক্রিকেট ক্লাবকে ৮৮ রানে হারায় তারা। কিন্তু আবাহনীর জয়ে শিরোপার স্বাদ নিতে পারলো না রূপগঞ্জ। এই জয়ে ১৬ খেলায় ১৩ জয় ও ৩ হারে ২৬ পয়েন্ট নিয়ে রানার্স-আপ হয়ে সন্তুষ্ঠ থাকতে হলো রূপগঞ্জকে। একই পয়েন্ট আবাহনীরও। কিন্তু রান রেটের হিসেবে পিছিয়ে থাকায় শিরোপা ঘরে তুলতে ব্যর্থ হলো রূপগঞ্জ।
মিরপুর শেরে বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে টস জিতে প্রথমে ফিল্ডিং বেছে নেয় প্রাইম ব্যাংক। ব্যাট হাতে উড়ন্ত সূচনা করেন রূপগঞ্জের দুই ওপেনার মেহেদি মারুফ ও মোহাম্মদ নাইম। ১৮ দশমিক ৪ ওভারে ১২৯ রানের সূচনা এনে দেন তারা। দু’জন হাফ-সেঞ্চুরির স্বাদও নেন। ৬টি চার ও ১টি ছক্কায় ৪৮ বলে নামের পাশে ৫৪ রান রেখে থেমে যান মারুফ। তবে মিডল-অর্ডার ব্যাটসম্যানদের নিয়ে দলের স্কোর বড় করতে থাকেন নাইম।
দ্বিতীয় উইকেটে মোমিনুল হকের সাথেও বড় জুটি গড়েন নাইম। এসময় সেঞ্চুরিও তুলে নেন নাইম। তিন অংকে পা দিয়েও বড় ইনিংসের পথেই ছিলেন নাইম। রান তোলায় পারদর্শী ছিলেন মোমিনুলও। কিন্তু হাফ-সেঞ্চুরির পরই থেমে যান তিনি। ৫৯ বলে ৫২ রান করেন মোমিনুল। মোমিনুলকে নিয়ে দ্বিতীয় উইকেটে ১১৭ বলে ১১৪ রানের জুটি গড়েন নাইম। কিছুক্ষণ বাদে আউট হন নাইমও। ১৯টি চারে ১৩০ বলে ১৩৬ রান করেন নাইম। ৪২তম ওভারে দলীয় ২৬০ রানে আউট হন নাইম।
এরপর অধিনায়ক নাইম ইসলাম অপরাজিত ২৪, জাকের আলী ১৯ বলে ২৭ ও মুক্তার আলী ৯ বলে অপরাজিত ২২ রান করে রূপগঞ্জকে ৫০ ওভারে ৪ উইকেটে ৩২৭ রানের বড় সংগ্রহ এনে দেন।
জয়ের জন্য ৩২৮ রানের টার্গেটে ভালোই শুরু করে প্রাইম ব্যাংক ক্রিকেট ক্লাব। দলকে ৬২ রানের সূচনা এনে দেন দুই ওপেনার রুবেল মিয়া ও অধিনায়ক এনামুল হক। কিন্তু দু’জনের কেউই বড় ইনিংস খেলতে পারেননি। রুবেল ৩৭ ও এনামুল ২৬ রানে আউট হন। পরের দিকের ব্যাটসম্যানরা বড় ইনিংস খেলতে না পারায় ১২২ রানে পঞ্চম উইকেট হারিয়ে বসে প্রাইম ব্যাংক। তবে সাত নম্বরে নেমে বড় ইনিংস খেলেছেন নাহিদুল ইসলাম। মারমুখী মেজাজে ৮টি চার ও ৩টি ছক্কায় ৫৭ বলে ৭৪ রান করেন নাহিদুল। তারপর ২৩৯ রানে অলআউট হয় প্রাইম ব্যাংক। রূপগঞ্জের মোহাম্মদ শহীদ ২২ রানে ৪ উইকেট নেন। ম্যাচ সেরা হন রূপগঞ্জের নাইম।
বাসস/এএসজি/এএমটি/১৯৩৫/নীহা